ভালোবাসার পদ্য।। সারওয়ার-উল-ইসলাম

দুপুরবেলা

দুপুরবেলা চুল শুকাতে
ব্যালকনিতে এলে
গলির মোড়ের দোকানটাতে
দাঁড়াতো এক ছেলে─

দেখতো তোমার চুল শুকানো
সে অপলক চোখে
পরের ঘরে এসে এখন
নেই মনে আর ওকে।

আজো ছেলে দুপুরবেলা
গলির মোড়ে যায়
দেখতে তোমার চুল শুকানো
ভুল করে তাকায়।

প্রশ্ন

বিরহের মাঝে পেয়েছি তোমাকে
হেরে থাকি আমি যদি
জানালার গ্রীলে হাত রেখে কেনো
চেয়ে থাকো নিরবধি?

শ্রাবণকে কেন জায়লা দিয়েছো
তোমার ওদুটি চোখে
এমন করলে হেরে গেছো তুমি
ভাববে না বলো লোকে?

কেউ বলে না

চোখ বুজলেই দেখি তোমার
সোনালী নাক ছাবি,
ঘুম ভেঙে যায়, মধ্যরাতে
ঠিক তখনি ভাবি─

কেমন আছো আমায় একা ফেলে─
তোমার মতো কেউ বলে না
‘হায়রে পাগল ছেলে।’

অপরাহ্ন প্রেম

হয়তো বা তার শাড়ির আঁচলে
কিংবা ওড়না খুটে
গোলাপের কুঁড়ি বেঁধে দিলে আজ
উঠবে না আর ফুটে।

ভালোবাসা যদি কড়া নেড়ে যায়
মনের দুয়ারে এসে
কি করে ফেরাই? এই বয়সেও
কাছে টেনে নেই হেসে।

One thought on “ভালোবাসার পদ্য।। সারওয়ার-উল-ইসলাম

  • সেপ্টেম্বর ৫, ২০২১ at ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ
    Permalink

    চমৎকার সব ছড়া

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published.